মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক গ্রন্থ / রচনা / সাহিত্যকর্ম



 মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক গ্রন্থ / রচনা / সাহিত্যকর্ম

 

নাটক

রচয়িতা

নাটক

সৈয়দ শামসুল হক

পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়: যুদ্ধশেষে মুক্তিবাহিনীর গ্রামে প্রবেশের সময়কার ঘটনা এখানে স্থান পেয়েছে। (মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক ১ম নাটক)

সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ

তরঙ্গভঙ্গ

মমতাজ উদ্দিন আহমেদ

“কী চাহ শঙ্খচীল” , “বর্ণচোর” , “স্বাধীনতা আমার স্বাধীনতা” , “বকুলপুরের স্বাধীনতা”

আলাউদ্দিন আল আজাদ

“নরকে লাল গোলাপ”

নীলিমা ইব্রাহিম

“যে অরণ্যে আলো নেই”

আব্দুল্লাহ আল মামুন

“আয়নায় বন্ধুর মুখ”

জিয়া হায়দার

“পঙ্কজবিভাস”

সাইদ আহমদ

“প্রতিদিন একদিন”

রণেশ দাশগুপ্ত

“ফেরী আসছে”

উপন্যাস

রচয়িতা

উপন্যাস

আনোয়ার পাশা

“রাইফেল রোটি আওরাত”- (মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক ১ম উপন্যাস)

সৈয়দ শামসুল হক

“নিষিদ্ধ লোবান” , “নীলদংশন”

শওকত ওসমান

“দুই সৈনিক” , “নেকড়ে অরণ্য” , “জাহান্নাম হতে বিদায়” , “জলাঙ্গী” , “ক্রীতদাসের হাসি” , “পিতল পিঞ্জর”

শওকত আলী

“যাত্রা”

হুমায়ূন আহম্মেদ

১. শ্যামল ছায়া ২. জ্যোছনা ও জননীর গল্প ৩. ১৯৭১ ৪. আগুনের পরশমনি ৫. নির্বাসন

মনের রাখার কৌশল: শ্যামল এবং জোছনা ১৯৭১ সালে দেশকে আগুনের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য নির্বাসনে যায় ।

আল মাহমুদ

“উপমহাদেশ”

আবু জাফর শামসুদ্দিন

“দেয়াল”

রশীদ হায়দার

“খাঁচায়”

সরদার জয়েনউদ্দিন

“বিধ্বস্ত রোদের ঢেউ”

সেলিনা হোসেন

“হাঙর নদী গ্রেনেড” , “যুদ্ধ”

ইমদাদুল হক মিলন

“কালো ঘোড়া”

রাবেয়া খাতুন

“ফেরারী সূর্য”

তাহমিনা আনাম

“এ গোল্ডেন এজ”

মুহম্মদ জাফর ইকবাল

“আমার বন্ধু রাশেদ”: একটি মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক শিশুতোষ উপন্যাস ।

তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়

“একটি কালো মেয়ের কথা”

সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়

“পূর্ব-পশ্চিম” ['পূর্ব-পশ্চিম' উপন্যাসটিতে বিভাজনপূর্ব বাংলার একটি পরিবার, ১৯৪৭ এর ভারত বিভাগের সময়কার পরিস্থিতি, দেশত্যাগ উদ্বাস্তুদের জীবন, নতুন প্রজন্মের চিন্তাধারা, পশ্চিমবঙ্গের নক্সাল আন্দোলন, এবং বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ স্থান পেয়েছে।]

মাহমুদুল হক

“জীবন আমার বোন”

আমজাদ হোসেন

“অবেলায় অসময়”

প্রবন্ধ

রচয়িতা

প্রবন্ধ

মেজর আব্দুল জলিল

“A search for Identity”

মেজর জেনারেল সুখওয়ান্ত সিং

“The liberation of Bangladesh”

ডঃ নীলিমা ইব্রাহীম

“আমি বীরাঙ্গনা বলছি”

সেলিনা হোসেন

“একাত্তরের ঢাকা”

রাবেয়া খাতুন

“একাত্তরের নিশান”

আলাউদ্দিন আল আজাদ

“ফেরারী ডায়েরী”

সম্পাদিত গ্রন্থ

রচয়িতা

গ্রন্থ

হাসান হাফিজুর রহমান

”মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসঃ দলিলপত্র ”: শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের উদ্যোগে ষোল খন্ডে “বাংলাদেশ স্বাধীনতা যুদ্ধ” বিষয়ক দলির সংগ্রহের প্রকল্প গৃহীত হয়েছিল ।

শামসুর রাহমান

“বাংলাদেশ কথা কয়”

রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম

“লক্ষ প্রাণের বিনিময়ে” , “একাত্তরের বিজয় গাঁথা” , “শেখ মুজিব ও স্বাধীনতা সংগ্রাম” , “মুক্তিযুদ্ধ ও বুদ্ধিজীবী” , “মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস” , “প্রতিরোধের প্রথম প্রহর”

স্মৃতিকথা

রচয়িতা

গ্রন্থ

এম আর আখতার মুকুল

“আমি বিজয় দেখেছি”

জাহানারা ইমাম

“একাত্তরের দিনগুলি” , “বুকের ভেতর আগুন”

সুফিয়া কামাল

“একাত্তরের ডায়েরি”

আলাউদ্দিন আল আজাদ

“ফেরারী ডায়েরী”

গল্প

শওকত ওসমান

“জন্ম যদি তব বঙ্গে”

রাবেয়া খাতুন

“মুক্তিযুদ্ধের গল্প (গল্প সংকলন)”

পত্রসংকলন

রচয়িতা

গ্রন্থ

প্রথম আলো ( পত্রিকা )

ও গ্রামীণফোন কোম্পানি

“একাত্তরের চিঠি” –বেসরকারি মোবাইল ফোন কোম্পানি গ্রামীণফোন ও জাতীয় দৈনিক ‘প্রথম আলো' যৌথ উদ্যোগে একাত্তরের চিঠি নামের মুক্তিযোদ্ধাদের এ পত্র সংকলনটি প্রকাশ করেছে (প্রথমা প্রকাশন থেকে প্রকাশিত)। এতে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে অসংখ্য মুক্তিযোদ্ধার স্বজনদের কাছে লিখিত ৮২টি পত্র স্থান পেয়েছে। ২৭মার্চ ২০০৯ বইটির প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয় ।

কবিতা

কবি

কবিতা

শামসুর রহমান

“স্বাধীনতা তুমি”

অ্যালেন গিনসবার্গ (USA)

“সেপ্টেম্বর অন যশোর রোড”

অন্যান্য গ্রন্থ

রচয়িতা

গ্রন্থ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

“আমার কিছু কথা”

মোনায়েম সরকার

“বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু”

বেগম নুরজাহান

“একাত্তরের কথামালা”

এন্থনি মাসকারেনহাস

“বাংলাদেশ রক্তের ঋণ” , “দ্য রেইপ অব বাংলাদেশ”

আব্দুল গাফফার চৌধুরী

“ইতিহাসের রক্ত পলাশ”

এম আর আখতার মুকুল

“ওরা চারজন”

চলচ্চিত্র

প্রামাণ্য চলচ্চিত্র ও পরিচালক

পরিচালক

প্রামাণ্য চলচ্চিত্র

জহির রায়হান

“Stop Genocide (1971)” , “A state is Born (1971)”

বাবুল চৌধুরী

“Innocent Millions (1971)”

তারেক মাসুদ ও ক্যাথরিন মাসুদ

“মুক্তির গান (১৯৯৫)”

আলমগীর কবির

“Liberation Fighters (1972)”

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও পরিচালক

পরিচালক

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র

খান আখতার হোসেন

“দুরন্ত”

নাসির উদ্দীন ইউসুফ

“একাত্তরের যীশু”

মোস্তফা কামাল

“প্রত্যাবর্তন”

সুমন আহমেদ

“নীল দংশন”

তানভীর মোকাম্মেল

“হুলিয়া” , “জীবনঢুলী”: এই ছবিতে নিম্নবর্ণের দরিদ্র ঢাকি "জীবনকৃষ্ণ দাস" এর জীবন এবং তার এলাকায় ঘটে যাওয়া নারকীয় হত্যাযজ্ঞ আবির্ভূত হয়েছে।

পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও পরিচালক

পরিচালক

পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র

চাষী নজরুল ইসলাম

“ওরা ১১ জন (১৯৭২)” , “হাঙ্গর নদী গ্রেনেড (১৯৯৭)”

আলমগীর কবির

“ধীরে বহে মেঘনা (১৯৭৩)”

খান আতাউর রহমান

“আবার তোরা মানুষ হ” , “এখনও অনেক রাত (১৯৯৭)”

সুভাষ দত্ত

“অরুণোদয়ের অগ্নি সাক্ষী (১৯৭২)”

হুমায়ুন আহমেদ

“আগুনের পরশমণি (১৯৯৫)”

গীতা মেহতা

“ডেডলাইন বাংলাদেশ (১৯৭২)”

মমতাজ আলী

“রক্তাক্ত বাংলা (১৯৭২)”

একাত্তর নামক সকল গ্রন্থ একসাথে দেওয়া হল কনফিউশন দূর করার জন্য

রচয়িতা

গ্রন্থ

জাহানারা ইমাম

একাত্তরের দিন গুলি (স্মৃতিকথা)

সুফিয়া কামাল

একাত্তরের ডায়েরী (স্মৃতিকথা)

সেলিনা হোসেন

একাত্তরের ঢাকা (প্ৰবন্ধ)

রাবেয়া খাতুন

একাত্তরের নিশান

বেগম নূরজাহান

একাত্তরের কথামালা

এম আর আখতার মুকুল

একাত্তরের বর্ণমালা

এম আর আখতার মুকুল

বিজয়-৭১

মেজর রফিকুল ইসলাম

একাত্তরের বিজয় গাঁথা

গ্রামীণ ফোন ও প্রথম আলো কর্তৃক প্রকাশিত

একাত্তরের চিঠি

শাহরিয়ার কবির

একাত্তরের যীশু

শামসুল হুদা চৌধুরী

একাত্তরের রণাঙ্গণ

এই পোস্টগুলি আপনার ভাল লাগতে পারে:

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন